মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

শিক্ষা প্রতিবেদন

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
জেলা শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়
ফরিদপুর।

 

শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড। শিক্ষাই পারে একটি জাতিকে উন্নতির শীর্ষে নিয়ে যেতে কারণ শিক্ষার মাধ্যমে আগামী প্রজন্ম সুশিক্ষিত ও সুনাগরিক হয়ে আলোকিত মানুষ হিসেবে দেশের সঠিক নেতৃত্ব দিবে। ফরিদপুর জেলার সার্বিক শিক্ষার মান উন্নয়নে জেলা প্রশাসক মহোদয়, অতিরিক্ত জেলাপ্ রশাসক(শিক্ষা ও আইসিটি), জেলা শিক্ষা অফিসার, SESDP এর কর্মকর্তাবৃন্দ ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাগণ আন্তরিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। শিক্ষার আধুনিকায়নের জন্য সরকারিভাবে জেলার অনেক স্কুলে ল্যাপটপ ও মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর দেওয়া হচ্ছে। সরকারিভাবে  শ্রেণি কক্ষগুলোতে মাল্টিমিডিয়ার আওতায় আনার চেষ্টা চলছে। খুব শীঘ্রই যদি আমরা সেটা করতে পারি তাহলে একটা ভালো অবস্থানে যেতে পারব। তবে শিক্ষকদের আরো আন্তরিক হতে হবে।আমরা জানি শিক্ষকতা একটা মহান পেশা, পেশাকে নেশা ও সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে। তবে শিক্ষাক্ষেত্রে যে একটি বিরাট আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে এটা সত্য। সবার মধ্যে তার সন্তানকে শিক্ষিত করার মানসিকতা সৃষ্টি হয়েছে। এখন সরকার বিভিন্নভাবে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছেন। সু-প্রশিক্ষিত শিক্ষকরাই শিক্ষার মান উন্নয়নে সহায়ক। এই জেলায় নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ২৯টি, মাধ্যমিক সরকারি বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৫টি, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ১৮৬টি, দাখিল,আলিম ও ফাজিল মাদ্রাসার সংখ্যা ৩৫টি, সরকারিভাবে সরকারি কলেজ সংখ্যা ৩৩টি। শিক্ষার মান উন্নয়নে  গুণগত মানের শিক্ষা আমাদের দরকার। উন্নয়নের কার্যক্রম জোরদার করার জন্য আমাদের আকাঙক্ষা শিক্ষার্থীরা যেন আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে বিশ্ব প্রতিযোগিতায় টিকে নিজে ও দেশের সুনাম বয়ে আনে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।